ঘাড়ের ব্যথা দূর করার উপায়

ঘাড়ের ব্যথা দূর করার উপায় – দেখুন ঘাড়ে ব্যথা দূর করার জন্য যা প্রয়োজন

আজকে আমরা কথা বলব কিভাবে ঘাড়ের ব্যথা দূর করা যায়। অনেকেই জানতে চায় কি কি কারণে ঘারের ব্যথা হয়। আমরা এই পোস্টে ঘাড়ের ব্যথা নিয়ে কিছু তথ্য তুলে ধরবো এবং কিভাবে এর প্রতিকার করবেন সে বিষয়ে আলোচনা করব। তাই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ার অনুরোধ রইল

Contents

ঘাড় ব্যথার কারণ ও প্রতিকার

আমাদের দৈনন্দিন নানান কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়। এর মাঝে হঠাৎ ঘাড়ে ব্যাথার কারণে যদি ঘাড় নড়াচড়া বা ঘাড়ের ব্যথায় যন্ত্রণা হয়। এর ফলে দেখা যায় কাজে ব্যাঘাত ঘটে ফলে নানান ধরণের চাপ তৈরি হয়। তবে কাজ তো করতেই হবে, কিন্তু এই ব্যথার কারণে কাজে মনোযোগ আসেনা। তবে কিছুই করার থাকেনা কাজ করতেই হবে। এর জন্য অবশ্যই জেনে নেওয়া উচিত কি কি কারনে সাধারণত ঘাড়ে ব্যথা হয়। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক সাধারণত কি কি কারণে ঘাড়ের ব্যথা হয়।

সাধারণত ঘাড়ের ব্যথার কারণগুলো

ঘুমানোর ভঙ্গিমা সকলরই এক নয় এর ফলে ঘাড়ে চাপ তৈরি হয়

মাত্রারিক্ত টেনশনের ফলে ঘাড়ে ব্যথার সূচনা হয়

কিছু কাজ আছে যে কাজে অনেক সময় ধরে মাথা ঝুঁকিয়ে রাখতে হয়। এর ফলে ঘাড়ে আঘাত তৈরি হয় আর সেই সাথে ঘাড়ের ব্যথা

অনেক সময় ধরে কম্পিউটারের কাজ করলে। কারণ কম্পিউটারের কাজ করার সময় সামনের দিকে ঝুঁকে থাকতে হয।

ঘাড়ে আঘাতের ফলে বা ঘাড়ের পেশিতে টানের ফলে

এবং বিভিন্ন কাজের উপর নির্ভর করে ঘাড়ের ব্যথা হয়ে থাকে

সাধারণত এসব বিষয়ের কারণে ঘাড়ের ব্যথা হয়ে থাকে। তবে চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে এর প্রতিকার করবেন। প্রতিকার বিষয়ে নিচে আলোচনা করা হয়েছে।

ঘাড়ের ব্যথা দূর করার উপায়

উপরে উল্লেখ করা হয়েছে সাধারণত কি কি কারনে ঘাড়ের ব্যথা হতে পারে। চলুন এখন দেখে নেয়া যাক কিভাবে এর প্রতিকার করবেন।

আমাদের ঘাড়ে ব্যথা হয়ে থাকে তার কারণ হচ্ছে আমরা নিজেদের প্রতি যত্নশীল হই না। এর ফলে অল্প আঘাতেই ঘাড়ে ব্যথা হয়। ঘাড়ের ব্যথা কমাতে কিছু বিষয়ে অনুশীলন করলে অবশ্যই এর থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। কিছু বদ অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে এবং এর সাথে ঘাড় নমনীয় ও শক্তিশালী করতে নিচের বিষয়গুলো অনুশীলন করুন। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক।

ঘাড়ের ব্যথা দূর করার উপায়

ঘাড়ের ব্যথা এর জন্য কিছু বিষয় পরিত্যাগ করা প্রয়োজন। যেমন আমরা অনেকেই মাত্রারিক্ত মোবাইল ফোন চালিয়ে থাকি। এর ফলে ঘাড়ের মাসল,বোন, লিগামেন্ট,স্পাইন এর সাথে পিঠ, ঘাড় ও কাঁধে চাপ পড়ে। তাই কম্পিউটার বা অফিসের কাজের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট কিছু সময় মেনে কাজ করা উচিত যেমন দশ থেকে বিশ মিনিট পর ঘাড় নরমাল পজিশন রেখে। একটানা এক পজিশনে না থেকে সামনে ও পিছে মুভ করে, স্ট্রেচ করলে, ল্যাটেরাল এক্সারসাইজ করলে ঘাড়ের ব্যথা দূর করা যায়।

ঘাড় নমনীয় ও শক্তিশালী করার জন্য মাথা সামনে ও পিছনের দিকে ঝোকান এভাবে কিছুক্ষণ ঝোকাতে থাকুন। তারপর ডান ও বাম দিকে মাথা ঘুরান। ঘাড়ের ব্যথা জন্য ডান ও বাম দিকে ঘোরানো অবস্থায় কিছুটা ব্যথা অনুভব হতে পারে। প্রতিদিন চার থেকে পাঁচ বার এভাবে অনুশীলন করুন। আশা করা যায় ঘাড়ের ব্যথা দূর হবে।

ঘাড়ের ব্যথা কমানোর উপায়

ঘাড়ের ব্যথা কমানোর উপায় হল কিছু বিষয় অবলম্বন করতে হবে। এর জন্য অবশ্যই কিছু টিপস অনুসরণ করুন যা নিচে দেয়া হয়েছে।

ঘাড়ে থাকে পেশি, হাড়, লিগামেন্ট,কর্ড, কিছু গ্ল্যান্ড, স্পাইনাল,সফট টিস্যু। শরীরের এই অংশের ওজন গড়ে পাঁচ থেকে ছয় কিলোগ্রাম। ঘাড়ের উপর অনেক চাপ পড়ে তার কারণ হচ্ছে ঘাড়ে আছে ছাব্বিশটি পেশি, যার বেশির ভাগ শরীরের দুই পাশে জোড়ায়। ঘাড়ে থাকে সাতটি হাড়। ঘাড়ের উপরে থাকে মস্তিষ্কের খুলি এবং নিচে থাকে বুকের খাঁজের হাড়, সামনে এবং পেছনে পিঠের হাড়। শরীরের সবচেয়ে গুরুত্বপ্তপূর্ণ হাড়গুলোকে সমন্বয় এবং নিয়ন্ত্রণ করে এই ঘাড়।

ঘাড়ের ব্যথা কমানোর জন্য একটি ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করুন। প্রথমে এজন্য একটি পাতেও আপেল সিডার ভিনেগার ও সামান্য পানি মিশিয়ে নিন। এর সাথে অবশ্যই একটি পরিষ্কার কাপড় রাখতে হবে সম্ভব হলে পানি গরম করে নিন। তারপর পরিষ্কার কাপড় ভালোভাবে ভিজিয়ে ঘাড়ের ব্যথা স্থানে ধরে রাখুন। আর এভাবে ব্যথা সারা না পর্যন্ত কিছু দিন চালিয়ে যান।

ঘাড় ব্যথা থেকে মুক্তির উপায়

ঘাড়ের ব্যথা থেকে আরো কিছু মুক্তির উপায় হল দীর্ঘক্ষণ কম্পিউটার সামনে বসে থাকবেন না। এবং আপনি যদি এমন কোন কাজ করেন যে কাজের সামনের দিকে বেশি সময় ঝুঁকে থাকতে হয়। ওই কাজে সতর্কতা অবলম্বন করুন কিছুক্ষণ পরপর কার সামনে ও পেছনের দিকে ঝুকুন এতে করে নরমাল অবস্থায় পজিশনে থাকতে পারবেন।

তীব্র ব্যথা কমে গেলেও ঘাড় নিচু বা উঁচু করা ও ঘাড় মোচড়ানো থেকে বিরত থাকুন। এতে করে ঘাড়ের ব্যথা উপশম হবে।

ঘাড়ের ব্যথা সারানোর উপায়

ঘাড়ের ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আরো কিছু অবলম্বন করতে পারেন।

ঘাড় মালিশ করলে ব্যথা থেকে সাময়িক উপশম পাবেন। এর পাশাপাশি ব্যায়াম করার চেষ্টা করুন এতে করে শরীর স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। সঠিক সময় ঘুমানোর চেষ্টা করুন। সঠিক সময় ঘুমাতে পারলে রক্ত প্রবাহকে উদ্দীপিত করতে এবং পেশীগুলোর কার্যক্ষমতা বাড়াতে পারে। এর সাথে ব্যথার স্থানে প্রতিদিন সামান্য সরিষার তেল গরম করে ঘাড়ে মালিশ করুন। আর এভাবে প্রতিনিয়ত করতে থাকুন এর থেকে অনেক উপশম পাবেন। তবে খেয়াল রাখতে হবে ব্যথার স্থানে মালিশ করার সময় হাতের অত্যাধিক ঘর্ষণ না হয় এতে করে ব্যথার স্থানে ক্ষত হয়ে যেতে পারে

শেষ কথা

আশা করি আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পরেছেন। উপরে উল্লেখ বর্ণনাগুলো অনুসরণ করলে আশা করি ব্যথা থেকে দ্রুত উপশম করতে পাবেন। যদি আজকের এই পোস্টটি আপনাদের কাছে ভালো লেগে থাকে। তাহলে অবশ্যই আপনাদের বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে পারেন।

আরও দেখুনঃ 

ওজন কমানোর উপায় – জানুন বিস্তারিত

মধু খাওয়ার নিয়ম, উপকারিতা ও অপকারিতা

খুশকি দূর করার উপায় – দেখুন বিস্তারিত

দুধের উপকারিতা ও অপকারিতা – দেখুন বিস্তারিত

কলার উপকারিতা ও অপকারিতা – দেখুন বিস্তারিত

ওজন কমানোর উপায় – জানুন বিস্তারিত

পেটের মেদ কমানোর সহজ উপায়

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top