টিপসবিজ্ঞানস্বাস্থ্য

খুশকি দূর করার উপায় – দেখুন বিস্তারিত

আপনারা যারা খুশকি দূর করার উপায় জানতে চান। তাদের জন্য আজকের এই পোস্ট এ খুশকি দূর করার উপায় সম্পর্কে সকল তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। তাই আজকের এই পোস্ট থেকে দেখে নিন খুশকি দূর করার উপায়।

বেশিরভাগ মানুষ খুশকি দূর করার উপায় সম্পর্কে জানতে চাই। তারা যাতে সঠিকভাবে সকল তথ্য জানতে পারে। তাদের জন্য আজকের এই পোস্ট এ খুশকি দূর করার উপায় উল্লেখ করা হয়েছে। এবং উল্লেখ করা হয়েছে কিভাবে খুশকি দূর করা যায়।

খুশকি হওয়ার কারন

অনেক কারনে মাথায় খুশকি হতে পারে। এখানে খুশকি হওয়ার কারন তুলে ধরা হল –

  • মাথার খুলির ত্বকে ধরনের ছত্রাক এর সংখ্যা বেশি হয়ে গেলে বা সংক্রমণ বেড়ে গেলে।
  • তেলগ্রন্থি থেকে তৈলাক্ত উপাদান বেশি পরিমাণে নির্গত হলে।
  • মাথার ত্বক অপরিষ্কার রাখলে।
  • মাথার ত্বকে অধিক পরিমাণ ধুলাবালি বা ময়লা থাকলে।
  • অনেকের বংশগত বা জিনগত কারণে খুশকি হয়।

খুশকি দূর করার উপায়

আসুন জেনে নিই চুলের খুশকি তাড়ানোর উপায়-

১. নারিকেল তেল খুশকির প্রকোপ। চুলের গোড়া ময়েশ্চারাইজ করে খুশকি এবং স্ক্যাল্প ইনফেকশন কমায়। সপ্তাহে দুবার চুলের গোড়ায় নারিকেল তেলের মালিশ করলে দ্রুত উপকার পাবেন।

২. চুলে পেঁয়াজের রস ব্যবহার করতে পারেন। দুটো পেঁয়াজ ভালো করে বেটে এক মগ পানি মিশিয়ে নিয়ে মাথায় এই রস ভালো করে লাগিয়ে মালিশ করুন। কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে দুবার পেঁয়াজের রস মাথায় মাখলে খুশকি দূর হবে।

৩. খুশকির সমস্যায় টকদই ব্যবহার করতে পারেন। টকদই মাথার ত্বকে ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন। ১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

৪. দুই টেবিল-চামচ লেবুর রস অল্প পানির সঙ্গে মিশিয়ে মাথার ত্বকে ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন। ২-৫ মিনিট ম্যাসাজ করার পর চুল ধুয়ে নিন।

৫. মেথি সারারাত পানিতে ভিজিয়ে সকালে ছেঁকে নিয়ে ভালো করে বেটে নিন। ছেঁকে নেয়া পানি ফেলে দেবেন না। এবার বেটে নেয়া মেথি চুলের গোঁড়ায় মাথার ত্বকে ভালো করে লাগিয়ে নিন। ঘণ্টাখানেক রেখে চুল ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।

খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায়

  • পরিমাণ পানিতে নিমপাতা সিদ্ধ করে নিন। তারপর নিমপাতা ছেঁকে নিয়ে ওই পানি দিয়ে তার মাথার ত্বক ভালোভাবে ধুয়ে নিন। ছেলেদের ত্বকের খুশকি দূর করতে এটি অত্যন্ত কার্যকরী। ভালো ফলাফলের জন্য সপ্তাহে তিন থেকে চারবার এটি ব্যবহার করুন।
  • পরিমাণমতো পানিতে আমলকি পাউডার মিশিয়ে মাথার খুলির ত্বকে লাগিয়ে দিন এবং কিছু সময় পরে শ্যাম্পু করে নিন এতে ছেলেদের খুশকি দূর হয়।
  • টক দই মাথার ত্বকের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ছেলেদের মাথার ত্বকে এককাপ টকদই ভালোভাবে মালিশ করুন কিছু সময় রেখে শ্যাম্পু করে নিন। এতে খুশকি দূরীভূত হবে।
  • নারিকেল তেল খুশকির প্রকোপ কমাতে অত্যন্ত কার্যকরী! নারিকেল তেল চুলের গোড়া ময়েশ্চারাইজ করে খুশকি এবং স্ক্যাল্প ইনফেকশনের ঝুঁকি অনেকটাই কমিয়ে দেয়।
  • দুটা মাঝারি মাপের পেঁয়াজ ভাল করে বেটে এক মগ বা ৩০০-৩৫০ মিলিলিটার পানিতে মিশিয়ে নিন। মাথায় এই পেঁয়াজের রস ভাল করে মাখিয়ে মিনিট পনেরো মালিশ করুন। এরপর ৫ মিনিট রেখে উষ্ণ পানি দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন। এ ভাবে সপ্তাহে দু’-তিন বার পেঁয়াজের রস মাথায় মাখলে খুশকির সমস্যা থেকে দ্রুত রেহাই মিলবে।
  • দুই চামচ পাতিলেবুর রস এক কাপ পানির সঙ্গে মিশিয়ে মাথার ত্বকে পাঁচ মিনিট ভালভাবে মালিশ করুন। তারপর চুল ধুয়ে ফেলুন। খুশকির সমস্যা পুরোপুরি দূর না হওয়া পর্যন্ত সপ্তাহে অন্তত দু’বার এভাবে চুলে পাতিলেবু ব্যবহার করে দেখুন। ফল পাবেন খুব দ্রুত।
  • খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায় গুলির মধ্যে অন্যতম নিমপাতা। নিমপাতায় উপস্থিত উচ্চমাত্রার ফ্যাটি অ্যাসিড মাথার ত্বককে শুষ্কতা থেকে রক্ষা করে এবং মাথার ত্বক ভালো থাকলেই তা চুলের বৃদ্ধি ঘটে। এছাড়াও মাথার ত্বক আর্দ্র থাকলে সেখানে খুশকি জন্মাতে পারে না।

চিরতরে খুশকি দূর করার উপায়

জেনে নিন চিরতরে খুশকি দূর করার ৭টি উপায় –

১. পুরনো তেঁতুল পানিতে গুলে নিন। গোলানো তেঁতুল চুলের গোড়ায় ভালো করে লাগান। ১০-১২ মিনিট অপেক্ষা করে চুল শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত দুদিন তেঁতুল মাথায় দিন। এতে খুশকি যেমন দূর হয় তেমনি মাথার চুলকানিও কমে যায়।
২. টকদই খুশকি দূর করতে ও চুল ঝলমলে করতে খুবই কার্যকরী। ৬ টেবিল চামচ টকদই খুব ভালো করে ফেটিয়ে নিন। এরপর এতে ১ টেবিল চামচ মেহেদি বাটা ভালোভাবে মেশান। মিশ্রণটি চুলের গোড়াসহ পুরো চুলে লাগিয়ে ৩০-৪০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর চুল ভালো করে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একদিন এই মিশ্রণটি ব্যবহার করুন। এতে চুল যেমন খুশকিমুক্ত হবে তেমনি চুল হয়ে উঠবে ঝলমলে ও রেশমি।
৩. একটি ডিমের সাদা অংশ ও ৪ টেবিল চামচ টকদই খুব ভালোভাবে ফেটিয়ে নিন। এরপর এতে ১ টেবিল চামচ পাতিলেবুর রস মেশান। মিশ্রণটি মাথার ত্বকসহ পুরো চুলে লাগান। ২০ মিনিট পর চুল শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত ১ বার এটা ব্যবহার করুন।
৪. মেথি চুলের খুবই উপকারী একটা জিনিস। নারকেল তেল গরম করুন। এরপর এতে মেথি গুঁড়া মেশান। মিশ্রণটি পুরো চুলে লাগিয়ে ১ ঘণ্টার পর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। দ্রুত ফল পাওয়ার জন্য সপ্তাহে ৩ দিন এটি ব্যবহার করুন।
৫. মেথি সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন। তারপর এটি থেঁতো করে চুলের গোড়ায় লাগান। ৩০ মিনিট পর চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত দুবার মেথি লাগান।
৬. চুলের স্বাস্থ্য রক্ষার্থে ও খুশকি দূর করতে অলিভ অয়েলের জুড়ি নেই। অলিভ অয়েল গরম করে নিন। এতে পাতিলেবুর রস মেশান। চুলের গোড়াসহ পুরো চুলে লাগিয়ে ১ ঘণ্টা অপেক্ষা করুন। এরপর চুল ভালো করে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ থেকে ৩ বার চুলে অলিভ অয়েল লাগান। খুশকি দূরের পাশাপাশি চুল হবে কোমল ও ঝলমলে। একই পদ্ধতিতে নারকেল তেলও ব্যবহার করতে পারেন।
৭. পেঁয়াজের রস খুব দ্রুত খুশকি দূর করতে পারে। পেঁয়াজ মিহি করে বেটে নিয়ে রস ছেঁকে নিন। পেঁয়াজের রস চুলের গোড়ায় ভালো করে ঘষে ঘষে লাগান। ২০-২৫ মিনিট রেখে চুল ভালোভাবে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত দুবার মাথায় পেঁয়াজের রস লাগান। এতে মাথা চুলকানোও কমে যাবে।

ছেলেদের মাথার খুশকি দূর করার কার্যকরী উপায়

ছেলেদের মাথার খুশকি দূর করার কার্যকরী উপায় সমূহ –

  • ছেলেদের মাথার ত্বক থেকে খুশকি দূর করার অন্যতম প্রধান উপায় হচ্ছে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার যেহেতু দিনের অধিকাংশ সময় ধুলোবালি এবং অতিরিক্ত রোদে থাকে তাই খুশকির প্রবণতা ছেলেদের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত। তাই মাথার ত্বক সব সময় পরিষ্কার রাখতে হবে।
  • খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন ছেলেদের মাথার খুশকি দূর করতে অত্যন্ত কার্যকরী। চর্বি জাতীয় খাবার খুশকি দূর করতে সহায়তা করে।
  • ছেলেদের ত্বকের খুশকি দূর করতে অলিভের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ অলিভ হয়েল প্রাকৃতিকভাবেই মশ্চারাইজার এবং ক্লিনজার হিসেবে ব্যবহৃত হয়। তাই নিয়মিত অলিভ অয়েল ব্যবহার করলে ছেলেদের ত্বকের খুশকি দূর হবে।
  • খুশকিযুক্ত মাথায় অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী ব্যবহার খুশকি সম্পূর্ণরূপে দূর করে এবং খুশকি চুলকানি দূর করে আপনাকে দেয় প্রশান্তি। অ্যালোভেরার বিদ্যমান বিভিন্ন উপাদান ছেলেদের মাথার ত্বকের ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া সমূহ ধ্বংস করে চুলকে করে তোলে সজীব এবং সতেজ।
  • অপরিশোধিত নারকেল তেলের সাথে মেথি মিশিয়ে কয়েকদিন রেখে দিন। প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর সময় ওই তেলটি ব্যবহার করুন এবং সকালে ধুয়ে নিন এতে ছেলেদের মাথার ত্বকের খুশকি দূর হবে।
  • ছেলেদের মাথার খুশকি দূর করতে লেবুর রস অত্যন্ত কার্যকরী। 4 টেবিল চামচ লেবুর রস দিয়ে মাথায় সম্পূর্ণ ভালভাবে মালিশ করে নিন। একটি পাত্রে পানি নিয়ে ওই পাত্রে লেবুর রস মিশিয়ে চুল ভালো করে ধুয়ে নিন এতে খুশকি সম্পূর্ণভাবে দূরীভূত হবে।
  • শ্যাম্পু করার কিছু সময় পূর্বে মাথার ত্বকে লবণ মিশিয়ে দিন। তাহলে শ্যামপুর সম্পূর্ণ উপকারিতা বুক করতে পারবেন। এতে করে ছেলেদের মাথার খুশকি দূর হবে।
  • চায়ের লিকার ঘন করে নিয়ে তার সঙ্গে অল্প পরিমাণ লেবুর রস মিশিয়ে মাথায় ভালোভাবে মালিশ করুন। আধঘন্টা পর শ্যাম্পু করে নিন। এতে ছেলেদের ত্বকের খুশকি দূর হবে।

শীতকালে খুশকি দূর করার উপায়

প্রকৃতিতে শীতের হাওয়া লেগে গেছে। এই সময়ে ত্বকের বিশেষ যত্ন নিতে হয়। চুলেরও আলাদা করে যত্ন নিতে হয়। না হয় ত্বক রুক্ষ হয়ে যাওয়ার পাশাপাশি চুলেও খুশকি দেখা দেয়।

শীতকালের শুষ্ক আবহাওয়ার কারণেই চুলে খুশকির সমস্যা দেখা দেয়। পাশাপাশি অতিরিক্ত দূষণের ফলেও মোটামুটি সারা বছর এ সমস্যা লেগেই থাকে। তাই নিচ থেকে দেখে নিন শীতকালে খুশকি দূর করার উপায় –

১) এক চামচ নারকেল তেল, এক চামচ লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় গোড়ায় লাগান। বেশ কিছুক্ষণ রাখার পরে শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

২) এক চামচ নারকেল তেল, ১ চামচ ক্যাস্টর অয়েল ভালো করে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় গোড়ায় লাগালে খুশকি দূর হয়।

৩) এক চামচ লেবুর রস, এক চামচ টক দই ভালো করে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় গোড়ায় লাগালে খুশকির হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

৪) দু চামচ মেথি আগের দিন রাতে ভালো করে জলের মধ্যে ভিজিয়ে রাখতে হবে পরের দিন সেই মেথির একটা পেস্ট বানিয়ে তার সঙ্গে এক চামচ লেবুর রস মিশিয়ে চুলের গোড়ায় গোড়ায় ভালো করে লাগিয়ে নিন।

৫) এক চামচ টক দই, এক চামচ লেবুর রস, এক চামচ নারকেল তেল ভাল করে মিশিয়ে নিয়ে গোটা মাথায় ভালো করে লাগিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণ পরে শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে ফেলুন।

৬) এক চামচ নারকেল তেল, এক চামচ আমলকির রস ভালো করে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় গোড়ায় লাগিয়ে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।

৭) একটি অ্যালোভেরা পাতা থেকে জেল আলাদা করে জেল সরাসরি মাথার তালুতে ম্যাসাজ করুন। ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। পরে শ্যাম্পু করে ফেলুন।

৮) দুটি পেঁয়াজ ভালো করে বেটে এক মগ পানিতে মিশিয়ে নিন। মাথায় এই পেঁয়াজের রস ভালো করে লাগিয়ে মালিশ করুন। কিছুক্ষণ পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

মাথায় খুশকি হলে করনীয়

  • মাথায় খুশকি হলে চুলের ব্রাশ চিরুনি এবং বালিশের কভার নিয়মিতভাবে পরিষ্কার করুন।
  • চুলের গোড়ায় সরাসরি মেহেদি ব্যবহারের পরিবর্তে মেহেদির রস ব্যবহার করুন।
  • ধুলাবালি বা রোদে বের হওয়ার সময় মাথায় স্কার্ফ, টুপি বা ক্যাপ ব্যবহার করুন।
  • চুল যদি কালার করান তাহলে লেবুর রস ব্যবহারে দূরে থাকুন।
  • মাথার ত্বক সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ময়লা মুক্ত রাখুন।
  • অপরিশোধিত তেলের ব্যবহার করে তুলুন।
  • চুল বেশিক্ষণ ভেজা রাখবেন না যত দ্রুত সম্ভব শুকিয়ে নিন।
  • প্রতিদিন পরিমাণমতো পানি খান।

সর্বশেষ কথা

আশা করি আজকের পোস্ট এর সাহায্যে খুশকি দূর করার উপায় সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আপনাদের যদি আজকের এই পোস্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে হয়। তাহলে অবশ্যই সবার সাথে শেয়ার করবেন। আরো নতুন তথ্য পেতে খুশকি দূর করার উপায় জানতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন।

আরও দেখুনঃ 

মেথির উপকারিতা ও অপকারিতা

আদার উপকারিতা ও অপকারিতা – দেখুন আদা খাওয়ার নিয়ম

দারুচিনির উপকারিতা ও অপকারিতা

লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা

মধু খাওয়ার নিয়ম, উপকারিতা ও অপকারিতা

Tech Tips

টিপস নেট বিডি সকল ধরনের প্রয়োজনীয় বিষয় নিয়ে কাজ করে। বিভিন্ন ধরনের শিক্ষামূলক, কৃষি, প্রযুক্তি, বিনোদনমূলক, কুইজ প্রতিযোগিতা, পরীক্ষার রেজাল্ট। সকল ধরনের তথ্য দিয়ে আমরা সাহায্য করে থাকি। নতুন তথ্য পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button