ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার নিয়ম

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক 2022 | এসএমএস ও BRTA সফটওয়্যার দিয়ে লাইসেন্স চেক

বর্তমানে বাংলাদেশে ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া কেউ মোটরসাইকেল কিনতে পারবেনা। রাস্তাঘাটে অতিরিক্ত বাইক এক্সিডেন্ট এর ফলে বাংলাদেশ সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যেখানে বিআরটিএ অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে সেপ্টেম্বর 1 তারিখ থেকে এই কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। আপনি যদি একজন দক্ষ বাইক চালক না হন তাহলে আপনি মোটরসাইকেল কিনতে পারবেন না।

বর্তমানে অসংখ্য মানুষ বাইক কেনার জন্য ড্রাইভিং লাইসেন্স করার জন্য বিআরটিএ অফিসে আবেদন করেছে। যেখানে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে বিআরটিএ অফিসিয়ালে প্রবেশ করে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর আবেদন করতে পারবেন। বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি সকল ধরনের যানবাহন চালোনার জন্য ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান করে থাকে।

তাই আপনি যদি একজন দক্ষ গাড়ি চালক বা বাইক চালক হয়ে থাকেন। তাহলে আপনার উচিত ড্রাইভিং লাইসেন্স করে নেয়া। আজকের পোস্টে উল্লেখ করা হয়েছে কিভাবে ড্রাইভিং লাইসেন্স যাচাই করবেন। কারন আবেদন করার সাথে সাথে আপনি ড্রাইভিং লাইসেন্স পাবেন না। আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স বর্তমান কোন অবস্থায় আছে। সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন আমাদের ওয়েবসাইটে।

ড্রাইভিং লাইসেন্সের পূর্ব শর্ত হলো লার্নার বা শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স। যেখানে ড্রাইভিং লাইসেন্সের আবেদনকারীর নূন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণী পাস ও অপেশাদারের জন্য নূন্যতম ১৮ বছর এবং পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য বয়স ন্যূনতম ২১ বছর হতে হবে। অন্যদিকে মানসিক ও শারীরিকভাবে সুস্থ থাকতে হবে।

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার নিয়ম

বর্তমানে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করা অনেক সহজ। কারন আপনি আপনার মোবাইল ফোন বা ল্যাপটপের মাধ্যমে বিআরটিএ অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে যে কোন সময় ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে পারবেন। অন্যদিকে আপনি যদি নতুন ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য আবেদন করে থাকেন তাহলেও ড্রাইভিং লাইসেন্স বর্তমান কোন অবস্থায় রয়েছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন। তাই বিস্তারিত মনোযোগ সহকারে পড়ে জেনে নিন কিভাবে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে হয়।

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক 2022

সময়ের সাথে প্রযুক্তি সবকিছু উন্নত করেছে যার জন্য এখন ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করার জন্য আপনাকে সরাসরি বিআরটিএ অফিসে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। আপনি বিআরটিএ অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর আবেদন করতে পারবেন। আবেদন করার জন্য আপনাকে কিছু তথ্য অনলাইনে দিতে হবে। নিচে উল্লেখ করা হয়েছে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক কিভাবে করতে হয়।

BRTA Driving License Check 

brta.gov.bd ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক

বর্তমানে তিনটি উপায়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে পারবেন। অনলাইন, এসএমএস ও সফটওয়্যার এর মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে পারবেন। নিচে তিনটি উপায়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স যাচাই করার পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দেয়া হয়েছে।

কিন্তু ড্রাইভিং লাইসেন্স আবেদন করার পর তিন মাস আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে। পরবর্তীতে আপনি অনলাইনে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স তথ্য বা লাইসেন্স এখন কোন পর্যায়ে রয়েছে তা জানতে পারবেন।

এসএমএস দিয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স যাচাই

মোবাইল থেকে এসএমএস প্রেরণ করে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার বিস্তারিত নিয়ম এখানে উল্লেখ করা হয়েছে। নিচের পদ্ধতিটি অনুসরণ করে একটি মাত্র এসএমএস প্রেরণ করে আপনি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স যাচাই করতে পারবেন।

  • প্রথমে, আপনি আপনার মোবাইল থেকে DL<স্পেস>Driving License Number লিখে 01552146222 নাম্বারে মেসজ পাঠিয়ে দিবেন
  • অথবা DL < Space>Reference no এবং মেসজটি পাঠিয়ে দিন ২৬৯৬৯ নাম্বারে।
  • মেসেজ দেয়ার ৫ মিনিটের মধ্যেই ফিরতি মেসেজে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর বর্তমান অবস্থা জানতে পারবেন।

BRTA সফটওয়্যার দিয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার নিয়ম

গুগল প্লে স্টোরে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার একটি অফিশিয়াল সফটওয়্যার রয়েছে। যে সফটওয়্যার এর মাধ্যমে আপনি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সের বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন। নিচে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার লিংক উল্লেখ করা হয়েছে।

DL Checker Software Download

সফটওয়্যার দিয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে হলে নিচের নিয়ম গুলো অনুসরণ করুন।

সফটওয়্যার এ প্রবেশ করার পরঃ
১. প্রথমে আপনার সঠিক জন্ম তারিখ প্রদান করুন।
২. তারপর আপনার রেফারেন্স নং অথবা ড্রাইভিং লাইসেন্স নং থাকলে সেটি প্রদান করুন।

এভাবে সাবিমিট করার পর আপনি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স টি দেখতে পারবেন। আপনি চাইলে উভয় সাইট ই চেক করে নিতে পারেন।

লার্নার বা শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

  • ১। নির্ধারিত ফরমে আবেদন।
  • ২। রেজিষ্টার্ড ডাক্তার কর্তৃক মেডিকেল সার্টিফিকেট।
  • ৩। ন্যাশনাল আইডি কার্ড / জন্ম সনদ/পাসপোর্ট এর সত্যায়িত ফটোকপি।
  • ৪। নির্ধারিত ফী, ১ ক্যাটাগরি-৩৪৫/-টাকা ও ২ ক্যাটাগরি-৫১৮/-টাকা বিআরটিএ’র নির্ধারিত ব্যাংকে (ব্যাংক এর তালিকা www.brta.gov.bd –তে পাওয়া যাবে) জমাদানের রশিদ।।
  • ৫। সদ্য তোলা ০৩ কপি স্ট্যাম্প ও ০১ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।

স্মার্টকার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

  • ১। নির্ধারিত ফরমে আবেদন।
  • ২। রেজিষ্টার্ড ডাক্তার কর্তৃক মেডিকেল সার্টিফিকেট।
  • ৩। ন্যাশনাল আইডি কার্ড / জন্ম সনদ/পাসপোর্ট এর সত্যায়িত ফটোকপি।
  • ৪। নির্ধারিত ফী (পেশাদার- ১৪৩৮/-টাকা ও অপেশাদার- ২৩০০/-টাকা) বিআরটিএ’র নির্ধারিত ব্যাংকে জমাদানের রশিদ।
  • ৫। পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স-এর জন্য পুলিশি তদন্ত প্রতিবেদন।
  • ৬। সদ্য তোলা ১ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।

আমরা আজকের পোস্টে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার বিস্তারিত পদ্ধতি সম্পর্কে সকল তথ্য উল্লেখ করেছি। আপনার আবেদ ন করার তিন মাস পরে আপনি সফটওয়্যারে আপনার তথ্য জানতে পারবেন। কিন্তু তার আগে আপনি এসএমএস এর মাধ্যমে চেষ্টা করতে পারেন। ড্রাইভিং লাইসেন্স সম্পর্কিত যে কোন সমস্যা থাকলে কমেন্ট করে আমাদের জানান।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *